ঘরে তৈরি প্রোবাইওটিক লেমোনেড বা লেবুর শরবতের গুণাবলী

প্রকাশিত ২১ মার্চ, ২০১৮ | আপডেট: ৬ ডিসেম্বর, ২০২০

এই রেসিপিতে ঘোল, ইওগার্টের প্রোটিন সমৃদ্ধ তরল উপাদান থাকে। ঘোল সুস্থ ব্যাকটেরিয়া ও এনজাইম ধারণ করে, যা সুস্থ্য ডাইজেস্টিভ ট্রাক্টের জন্য অত্যাবশ্যক। একটা সুস্থ্য ডাইজেস্টিভ ট্রাক্ট একটা সুস্থ ইমিউন সিসটেম ধারণ করে।

এই ফার্মেন্টেড ড্রিংক খারাপ ব্যাকটেরিয়া থেকে মুক্তি পেতে আমাদের সিসটেমকে বিশোধন করে। এমনকি এটি জয়েন্টের ব্যথা লাঘবে ও ওজন নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। ঘোল ইসেনশাল অ্যামাইনো এসিডেও সমৃদ্ধ থাকে, যে অ্যামাইনো এসিড শরীরের গুরুত্বপুর্ণ জৈবিক কাজ চালু রাখতে সাহায্য করে। ঘোলে উপস্থিত অন্যান্য পুষ্টিকর পদার্থ রয়েছে যেমন পটাশিয়াম, আয়রন, জিংক, ভিটামিন বি১২ বা রাইবোফ্ল্যাভিন।

এই রেসিপির অন্য প্রধান উপাদান হচ্ছে লেবু, যা ক্যালসিয়াম, পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, আয়রন, ভিটামিন এ, ভিটামিন সি, বি কমপ্লেক্সের মত পুষ্টিকর পদার্থের একটি উৎকৃষ্ট উৎস। তাছাড়া লেবু শরীর সুস্থ রাখতে সাহায্য করার জন্য অ্যানটি-ব্যাকটেরিয়াল ও অ্যানটি-ভাইরাল প্রোপার্টি, ইমিউন বুস্টিং পাওয়ার ধারণ করে।

প্রোবাইওটিক লেমোনেড বা লেবুর শরবত তৈরির প্রয়োজনীয় উপকরন

১। কাপ ঘোল তৈরির জন্য ২ কাপ ফুল ফ্যাট প্লেইন ইওগার্ট
২। চীজ ক্লোথ ও রাবার ব্যান্ড
৩। সুগার ৩/৪-১ কাপ
৪। লেবু ১০-১২ টা
৫। ১ গ্যালনের জগ
৬। পানি
৭। লেবু প্রেষণ যন্ত্র বা স্কুঈজার
৮। মাপ নির্ণয়কারী কাপ
৯। চামচ

প্রোবাইওটিক লেমোনেড বা লেবুর শরবত তৈরির  ধাপসমুহ  

১ টা বোলের উপর পরিষ্কার চীজ ক্লোথ রাখতে হবে এবং তার উপর ইওগার্ট ঢালতে হবে। অতঃপর ১ টা রাবার ব্যান্ড দিয়ে চীজ ক্লোথ শক্ত করে বাঁধতে হবে। ঝুলিটি বোলের উপরে ঝুলিয়ে রাখতে হবে। এখন কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন ও বোলে ঘোল সংগ্রহ করুন। এটা কয়েক ঘণ্টা সময় নিতে পারে। 

মনে রাখবেন এই রেসিপির জন্য ১ কাপ ঘোল দরকার। এরপর অন্য একটা বোলে ১০-১২ টা লেবু নিয়ে তা থেকে প্রেষণ যন্ত্রের সাহায্যে রস বের করে নিতে হবে। ১ গ্যালনের জগে লেবুর রস ঢালতে হবে। পরবর্তীতে জগের মধ্যে ইওগার্ট থেকে সংগ্রহ করা ১ কাপ ঘোল যোগ করতে হবে। তারপর ৩/৪-১ কাপ সুগার যোগ করতে হবে। ইচ্ছামতে একটু হালকা গরম পানি জগে যোগ করতে পারেন, যাতে সুগার দ্রুত গলে যায়। 

সম্পুর্ণভাবে সকল উপাদান মিশ্রিত করতে চামচ ব্যবহার করতে পারেন। অবশেষে ঠাণ্ডা, পরিশ্রুত পানি দিয়ে জগটি পুর্ণ করতে হবে। চাইলে আপনি আইস কোল্ড ওয়াটার ব্যবহার করতে পারেন। যথার্থ ফার্মেন্টেশনের জন্য ২-৩ দিন যাবত রুম টেমপারেচারে কিচেন কাউন্টারে জারটি রাখতে হবে। ফার্মেন্টেশন প্রক্রিয়ার পরই তা ব্যবহারের জন্য আপনার প্রোবাইওটিক লেমোনেড তৈরি। দিনে ২-৩ বার আপনি এটা পান করতে পারবেন।

লেখক- মোঃ ফারুক হোসাই