প্যালিআটিভ কেয়ার- শ্বাসকষ্ট

প্রকাশিত ৩১ আগস্ট, ২০১৮ | আপডেট: ১৮ এপ্রিল, ২০২১

আসুন প্রথমে জেনে নেই, প্যালিআটিভ কেয়ার সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত বিবরণ

প্যালিআটিভ কেয়ার, যার বাংলা অর্থ দাঁড়ায় প্রশমন সেবা। এটি গুরুতর অসুস্থতার অসুবিধা, লক্ষণাদি ও মানসিক চাপের চিকিৎসা। এখানে রোগাগ্রস্ত মানুষের জন্যে বিশেষ চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়ে থাকে।

প্যালিআটিভ কেয়ার নিম্নোক্ত সমস্যাসমুহ সহ যন্ত্রণাদায়ক লক্ষণাদি থেকে স্বস্তি দেয়

১। ব্যথা।

২। শ্বাসকষ্ট।

৩। ক্লান্তি।

৪। কোষ্ঠ্যকাঠিন্য।

৫। বমি ভাব।

৬। অরুচি বা ক্ষুধামান্দ্য।

৭। ঘুমের সমস্যা।

এছাড়া প্যালিআটিভ কেয়ার মেডিক্যাল ট্রিটমেন্ট এর পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়ার বিহিত করতে আপনাকে সাহায্য করতে পারে, বিশেষ করে যে মেডিক্যাল ট্রিটমেন্ট আপনি নিচ্ছেন।

নিম্নোক্ত কিছু রোগাদি বা সমস্যার তীব্র, দীর্ঘস্থায়ী যন্ত্রণা থেকেমুক্ত পাওয়ার লক্ষ্যে প্যালিআটিভ কেয়ার এর দরকার

১। শুরুতেই ক্যানসারের কথা বলা যায়।

২। যকৃতের রোগ।

৩। ফুসফুসের রোগ ইত্যাদি।

আরও রয়েছে

১। হার্ট ডিজীজ।

২। কিডনি ফেইলুর।

৩। এইচআইভি/এইডস।

৪। ডিমেনশিয়া।

৫। অ্যামায়োট্রোপিক লেটারাল স্ক্লেরোসিস।

হসপিস কেয়ার, জীবনের শেষ দিকে সেবা, সর্বদা প্যালিআটিভ কেয়ার অন্তর্ভুক্ত করে। কিন্তু চাইলে আপনি অসুস্থতার যে কোন স্টেইজ–এ প্যালিআটিভ কেয়ার গ্রহণ করতে পারেন। লক্ষ্য হচ্ছে আপনাকে স্বস্তিপুর্ণ বা চিন্তামুক্ত করা, জীবনের গুনগত মান উন্নতিসাধন করাএবং গুরুতর অসুস্থতার সাথে রোগীকে অধিকতর ভালো বোধ করাতে সাহায্য করা। বহু গবেষণায় দেখা গিয়েছে, প্যালিআটিভ কেয়ার মানুষের আয়ু বৃদ্ধি করে ও জীবনের শেষ সময়ে চিকিৎসার খরচ কমায়। এর মাধ্যমে একজন রোগী স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে পারে।

প্যালিআটিভ কেয়ার আবেগপ্রবণ, সামাজিক, প্রায়োগিক বা ব্যবহারিক ও আধ্যাত্নিক সমস্যারও চিকিৎসা করে, যা অসুস্থতার কারণ হয়ে থাকে।

এই সেবা পেতে আপনার চিকিৎসক বা চিকিৎসা ছাড়ার দরকার নেই।

এবার শ্বাসকষ্টে আসা যাক, আপনি পর্যাপ্ত বায়ু পাচ্ছেন না বা আপনার শ্বাসপ্রশ্বাসের অসুবিধা রয়েছে তেমনটা যখন আপনার বোধ হয় তখন এটাকে শ্বাসকষ্ট বলা হয়। এর জন্য মেডিক্যাল শব্দ হচ্ছে ডিস্পনিয়া।

শ্বাসকষ্টের বহু সম্ভাব্য কারণ রয়েছে

১। দুশ্চিন্তা ও ভয়।

২। প্যানিক অ্যাটাক।

৩। লাং ইনফেকশন, নিউমোনিয়া বা ব্রংকাইটিসের মতো।

৪। লাং ইলনেস, এমফাইসেমার মতো।

৫। হার্ট, কিডনি বা লিভারের সমস্যা।

৬। অ্যানিমিয়া।

৭। কোষ্ঠ্যকাঠিন্য।

যে কোনো সময় আপনি শ্বাসকষ্ট নিয়ন্ত্রণে অক্ষম হলে আপনি চিকিৎসক, প্যালিআটিভ কেয়ার টীম, বা উপদেশের জন্য হসপিস নার্সকে কল করুণ।

এই লেখাটি শুধুমাত্র তথ্যের জন্য, কিন্তু চিকিৎসা সংক্রান্ত অবস্থা নিরুপন বা চিকিসা গ্রহণের জন্য ব্যবহার করা উচিত নয়।

মোঃ ফারুক হোসাইন