ডেন্টাল অ্যাবসেস, কারণ ও চিকিৎসা

প্রকাশিত ১৪ এপ্রিল, ২০১৮ | আপডেট: ১২ আগস্ট, ২০২০

ডেন্টাল অ্যাবসেস বলতে দাঁতের ভিতর, মাড়ির মধ্যে সৃষ্ট পুঁজের সংগ্রহ বা উপস্থিতিকে বোঝানো হয়। এটি ব্যাকটেরিয়া দ্বারা সৃষ্ট একটি সংক্রমণ। কারো ডেন্টাল অ্যাবসেস থাকলে তা বেশির ভাগ সময় ভীষন যন্ত্রণাদায়ক হয়ে থাকে, কিন্তু সবসময় নয়। যেহেতু এটি একটি ব্যাকটেরিয়াল ইনফেকশন তাই আপনাআপনি অ্যাবসেস সেরে যায় না।

ডেন্টাল অ্যাবসেসের কারণ

মুখে যখন ব্যাকটেরিয়া বৃদ্ধি পায় তখন প্লেক নামক আঠালো ফিল্ম দাঁতের উপরে দেখতে পাওয়া যায়। আপনি যদি নিয়মিত দাঁত পরিষ্কার না করেন তাহলে প্লেকের মধ্যে ব্যাকটেরিয়া দ্বারা উৎপন্ন অ্যাসিড দাঁত ও মাড়ির ক্ষতিসাধন করতে পারে। পরিণতিতে দাঁতে ক্ষয় ও গাম ডিজীজ দেখা দিতে পারে।

নিম্নোক্ত কারণে ডেন্টাল অ্যাবসেস বিকশিত হওয়ার সম্ভাব্যতা বাড়তে পারে

১। মুখের অস্বাস্থ্যকর অবস্থা- খাবার খাওয়ার পর যদি নিয়মিত ব্রাশ করা কিংবা খাদ্যকণা দূরীভূত করা না হয় তবে দাঁতের উপর প্লেক বৃদ্ধি পেতে পারে।

২। প্রচুর পরিমাণ চিনিজাতীয় বা আঠালো খাবার ও পানীয় গ্রহণ- এই জাতীয় খাবার প্লেকে ব্যাকটেরিয়ার বৃদ্ধি বাড়িয়ে দিতে পারে এবং দন্তক্ষয় সৃষ্টি হতে পারে যার ফলে অ্যাবসেস হয়ে থাকে।

৩। দাঁত বা মাড়িতে জখন বা পুর্ববর্তী সার্জারী- ব্যাকটেরিয়া জখম ও সার্জারীর সময় দাঁত ও মাড়ির ক্ষতিগ্রস্ত অংশে প্রবেশ করতে পারে ও সংক্রমণ সৃষ্টি করে।

৪। দুর্বল ইমিউন সিসটেম- কিছু মুলগত স্বাস্থ্য সমস্যা যেমন ডায়াবেটিসে আক্রান্ত ব্যক্তি ও যারা chemotherapy ও steroid medication সহ চিকিৎসা নিচ্ছেন তাদের মধ্যে বেশি দেখা যায়।

ডেন্টাল অ্যাবসেসের চিকিৎসা

সংক্রমণ ঠেকাতে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সাহায্য গ্রহণ করা অতি প্রয়োজনীয়। অন্যথায় তা মাঝেমধ্যে শরীরের অন্যান্য অংশে ছড়িয়ে পড়তে পারে এবং আপনাকে অসুস্থ করে তোলতে পারে।

তাই বিলম্ব না করে একজন ডেন্টিস্টের শরণাপন্ন হতে হবে। অ্যাবসেসের অবস্থার ভিত্তিতে ও সংক্রমণ কতটা তীব্র তার উপর সম্ভাব্য চিকিৎসা নির্ভর করে। 

চিকিৎসার মধ্যে রয়েছে

১। ক্ষতিগ্রস্ত দাঁত অপসারণ

২। রুট ক্যানাল ট্রিটমেন্ট

৩। ইনসিজন ও ড্রেনেইজ

সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়লে বা অবস্থা তীব্র হলে ডেন্টাল অ্যাবসেসের জন্য চিকিৎসক সম্ভবত Antibiotics প্রেসক্রাইব করে থাকবেন।

ব্যথার জন্য চিকিৎসক paracetamol কিংবা Ibuprofen দিয়ে থাকবেন। মনে রাখবেন চিকিৎসকের পরামর্শ ব্যতীত কোন NSAIDসেবন করবেন না।

এই লেখাটি শুধুমাত্র তথ্যের জন্য, কিন্তু চিকিৎসা সংক্রান্ত অবস্থা নিরুপন বা চিকিসা গ্রহণের জন্য ব্যবহার করা উচিত নয়।

মোঃ ফারুক হোসাই