হিন্দু আইনে দান

প্রকাশিত ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ | আপডেট: ২১ নভেম্বর, ২০১৯

মুসলিম আইনের মত হিন্দু আইনেও সম্পত্তি দান করা যায়। তবে কিছু নিয়মকানুন দানের ক্ষেত্রে সব সময়ই থাকে তেমনি হিন্দু আইনেও কিছু নিয়ম কানুন আছে। জেনে নেওয়া যাক নিয়মকানুন গুলো।

কোন সম্পত্তি দান করা যাবে

১. একজন হিন্দু ব্যক্তি তার সম্পত্তির এক অংশ বা সব সম্পত্তি দান করতে পারেন কিন্তু যারা তার পরিবারে ভরনপোষন পায় তাদের অধিকার দিয়ে তারপর দান করতে পারবেন।

২. একজন পিতা তার সম্পত্তি দান করতে পারেন কিন্তু যারা ভরনপোষন পাবে তাদের অধিকার দিয়ে তিনি দান করতে পারবেন।

৩. একজন নারী তার স্বামীর কাছ থেকে পাওয়া বা নিজ সম্পত্তি দান করতে পারবেন কিন্তু কিছু ক্ষেত্রে স্বামীর অনুমতি নিতে হবে। অনুমতি ছাড়া দান করতে পারবেন না।

৪. একজন বিধবা নারী তার নিজ বা স্বামী হতে পাওয়া কিছু অংশ সম্পত্তি দান করতে পারবেন।

৫. একজন হিন্দু ব্যক্তি যদি অনেক সম্পত্তির মালিক হয়ে থাকেন সেক্ষেত্রে তিনি তার সম্পত্তি দান করতে পারবেন কিন্তু যদি কোন প্রকার বিধি নিষেধ থাকে সেক্ষেত্রে তিনি তার সম্পত্তি সব দান করতে পারবেন না।

যেসব ক্ষেত্রে সম্পত্তি দান করা যাবে

১. স্থাবর সম্পত্তি হলে অবশ্যই রেজিষ্ট্রি করতে হবে। রেজিষ্ট্রি করে দান করতে হবে। দাতার পক্ষ হতে ২ জন স্বাক্ষী সহ স্বাক্ষর করতে হবে।

২. অস্থাবর সম্পত্তি হলে দান করার সময় রেজিষ্ট্রি করে স্বাক্ষর করে দান করতে হবে।

কোন ব্যক্তি যদি চান তার সম্পত্তি দান করবেন এবং যাকে দান করবেন তিনি সারা জীবন তা ভোগ করতে পারবেন তাহলে সে ভাবে দান করতে পারবেন।

শর্ত আরোপ

যিনি দান করবেন তিনি যদি শর্ত দিয়ে দেন যে দানকৃত সম্পত্তি কোন ভাবে অন্য কারো কাছে হস্তান্তর হবে না। তাহলে যিনি দান গ্রহন করছেন তাকে তা মেনে চলতে হবে।

দান ফিরিয়ে নেওয়া

একবার সম্পত্তি দান করে দিলে তা ফিরিয়ে নিতে পারবে না। যদি না দান গ্রহন করা ব্যক্তি কোন প্রকার প্রতারনা করে। যদি প্রতারনা করে থাকে সেক্ষেত্রেই মাত্র দান ফিরিয়ে নেওয়া যাবে।

লেখিকা- মুমতাহিনা প্রমি, আইনে অধ্যায়নরত ছাত্রী, ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি।